দীপিকা এনসিবি’র জেরায় বারবার কান্নায় ভেঙে পড়েন

দীপিকা এনসিবি’র জেরায় বারবার কান্নায় ভেঙে পড়েন

সুশান্ত সিং রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পর মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে একে একে বলিউড তারকারা ফেঁসে যাচ্ছেন। শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)’র দপ্তরে জেরার সম্মুখীন হন অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন, সারা আলী খান ও শ্রদ্ধা কাপুর।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানায়, এনসিবি’র জিজ্ঞাসাবাদের সময় তিনবার কান্নায় ভেঙে পড়েন দীপিকা পাড়ুকোন। জানা গেছে, এসময় এনসিবি কর্মকর্তারা তাকে ‘ইমোশনাল কার্ড’ না খেলার জন্য বলেন।

জেরায়, দীপিকা পাড়ুকোন স্বীকার করেন, এনসিবি যে মাদক-সংশ্লিষ্ট চ্যাটিংয়ের অভিযোগ তুলেছে, সেটা তিনি করেছেন। তার ম্যানেজার কারিশমা প্রকাশের সঙ্গে মাদকদ্রব্য নিয়ে তিনি চ্যাট করেছিলেন। তবে কোনোপ্রকার মাদক তিনি গ্রহণ করেননি বলে দাবি করেন।

ইতোমধ্যে দীপিকার ফোন হেফাজতে নিয়েছে এনসিবি। এনসিবি জানিয়েছে, দীপিকা, কারিশমা, রাকুল ও খামবাট্টার ফোন ইন্ডিয়ান এভিডেন্স অ্যাক্টের অধীনে হেফাজতে নিয়েছে এনসিবি।

এর আগে শুক্রবার রাতে গোয়া থেকে স্বামী রণবীর সিংয়ের সঙ্গে মুম্বাই ফেরেন দীপিকা। সেখানে শকুন বাত্রার আসন্ন সিনেমার শুটিং করছিলেন তিনি।