স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়নি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো: প্রতিমন্ত্রী

স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়নি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো: প্রতিমন্ত্রী

খুলনা: রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো স্থায়ীভাবে বন্ধ করা হয়নি। মূলত সাময়িক উৎপাদন বন্ধ করা হয়েছে।যত দ্রুত সম্ভব মিলগুলোকে উৎপাদনে ফিরিয়ে আনা হবে।  শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান সোমবার (০৫ অক্টোবর) বিকেলে খুলনা বিভাগীয় শ্রম অফিসের সম্মেলনকক্ষে সরকারি সিদ্ধান্তে সময়িক বন্ধ থাকা খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলসমূহের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত ভার্চ্যুয়াল মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি কারও উসকানিতে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, সোনালী আঁশের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা, পাট চাষিদের কথা বিবেচনায় নিয়ে এবং ব্যবসা ক্ষেত্রে ভারসাম্য রক্ষায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলসমূহকে অবশ্যই চালু রাখবে সরকার। জিটুজি,  পিপিপি অথবা লিজিং ব্যবস্থাপনায় অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করে পাটকলগুলোকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করা হবে। মিলসমূহ চালু হলে দক্ষ শ্রমিকরা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সেখানে চাকরি পাবেন। বঙ্গবন্ধুকে বিশ্বাস করে বাঙালি জাতি যেমন ঠকেনি, তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বাস করেও শ্রমিকরা অবশ্যই ঠকবেন না।

মিলগুলোর উৎপাদন বন্ধ এই সুযোগে কেউ যেন যন্ত্রপাতি মিলের বাইরে নিয়ে যেতে না পারে সে বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন এবং শ্রমিকদের সতর্ক থাকার তাগিদ দেন প্রতিমন্ত্রী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

শ্রম অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মো. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইউসুপ আলী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উপ মহা-পরিদর্শক মো. আরিফুল ইসলাম, খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম সানাউল্লাহ নান্নু, মো. আশরাফুল ইসলাম, খুলনা অঞ্চলের নয়টি পাটকলের সিবিএ নেতারা মতবিনিময় সভায় অংশ নেন।