সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

ঢাকাসপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার (৪ নভেম্বর) সূচকের পতনের মধ্য দিয়ে পুঁজিবাজারের লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে(সিএসই) লেনদেন বেড়েছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বুধবার ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৮ পয়েন্ট কমে চার হাজার ৯১৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১১১৪ ও ১৭০৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে এদিন ৮২০ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। আগের কার্যদিবসের চেয়ে ২৫ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৭৯৫ কোটি ১২ লাখ টাকার।

ডিএসইতে ৩৫৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৯৫টি কোম্পানির, কমেছে ১৮৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দর।

বুধবার লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ প্রতিষ্ঠান হলো- বেক্সিমকো ফার্মা, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স, অ্যাসোসিয়েট অক্সিজেন, পিপলস ইন্স্যুরেন্স, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স, শাইনপুকুর সিরামিক, বেক্সিমকো লিমিটেড, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স ও গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ১১৪ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ১৪২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টির কোম্পানির শেয়ার দর।

সিএসইতে ৪২ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১৪ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৮ কোটি ৫২ লাখ টাকার।