সে ত্যানাফাডা সাংবাদিক, এটারে স্যাম্পল হিসাবে মারা যায়’

সে ত্যানাফাডা সাংবাদিক, এটারে স্যাম্পল হিসাবে মারা যায়’

আমাকে তুলে নেওয়ার পর তারা সময় মত করে এসে মারতো। আমার পিঠসহ শরীরের প্রতিটি জয়েন্টে তারা আঘাত করেছে। তারা যখন কথা বলতো আমার কানে হেডফোন আর তুলা দিয়ে রাখত যাতে তাদের কথা আমি না বুঝি। মারার সময় অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতো।’

বুধবার দুপুর ২টায় অপহরণের শিকার সাংবাদিক গোলাম সারোয়ার চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) কার্যালয়ে এসে তাকে নির্যাতনের বিস্তারিত বিবরণ এভাবেই তুলে ধরেন গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে। নগরীর জামালখান এলাকার প্রেসক্লাব ভবনে সিইউজে কার্যালয়।

এসময় গোলাম সরোয়ার বলেন, ‘অপহরণকারীরা যখন আমাকে নির্যাতন করছিল তখন আমি জিজ্ঞেস করেছিলাম কোন নিউজের কারণে আমার উপর তাদের এত ক্ষোভ, কিন্তু তারা নির্দিষ্ট করে সেই প্রশ্নের জবাব দেয়নি।’ তিনি বলেন, ‘তারা আমার সামনে বলে, সে ত্যানাফাডা সাংবাদিক। এটারে মারলে কিছু হবে না। স্যাম্পল হিসাবে মারা যায়।’

এ সময় সিইউজে সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘গোলাম সরোয়ার যদি মামলা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন সেক্ষেত্রে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন তার মামলা পরিচালনার খরচ বহন করবে। নীতিগতভাবে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন যেকোনো পেশাদার সাংবাদিকের পাশে থাকবে।’

সিইউজে সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলাম বলেন, ‘সাংবাদিক গোলাম সরোয়ারকে আইনি সহযোগীতা দেওয়ার জন্য চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন একটি আইনজীবী প্যানেল গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সিইউজে সব সময় গোলাম সারোয়ারের পরিবারের পাশে থাকবে।’

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিইউজে সিনিয়র সহ-সভাপতি রতনকান্তি দেবাশীষ, সহ সভাপতি অনিন্দ্য টিটো প্রমুখ। সূত্র : চট্টগ্রাম প্রতিদিন।