অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িত সবাইকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িত সবাইকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জড়িত সবাইকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। গতকাল শনিবার ধানমন্ডির বাসায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এই কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এইগুলো এরা সমবসময়ই করে থাকে। সব সময় করার প্রচেষ্টা হয়তো নেবে। কিন্তু কোন জায়গায়ই সাকসেসফুল হয়নি, এবারই কয়েকটি বাসের মধ্যে এরা অগ্নিসংযোগ করেছে। আমরা এটার ব্যবস্থা নিচ্ছি যাতে করে, যারা এই কাজে সম্পৃক্ত ছিল, যারা এই অগ্নিসংযোগ করেছে, তাদের সবাইকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফোনালাপ যাচাই করা হচ্ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এগুলো বিশ্লেষণ করে যারা এর হোতা, যারা এগুলো করিয়েছে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। ঢাকা-১৮ উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই সহিংসতা হতে পারে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কিছু কথোপকথন পাওয়া গেছে, সেখান থেকে দেখা যায় যে ফলাফল মেনে নিতে পারেনি বলেই তারা (বিএনপি) এমনটি করেছে। যেখানেই তারা পরাজিত হয়েছে সেখানেই তারা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। যারা এ অগ্নিসংযোগ করেছিলেন, ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে অনেকজনকে আমরা চিহ্নিত করেছি। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাদের চিহ্নিত করে আমরা তাদের আইনের কাছে সোপর্দ করেছি। নিরাপত্তা বাহিনী তৎপর রয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান বলেন, গোয়েন্দাদের ব্যর্থতা নেই। তাদের তৎপরতা চলছে বলেই এখন দেশ শান্তিতে রয়েছে। আমরা এতটুকু বলতে পারি দেশে আমরা কোন অরাজক পরিস্থিতি হতে দেব না। সরকারি এজেন্টরা বাসে অগ্নিসংযোগ করেছে- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এই বক্তব্যের কোনো সত্যতা আছে বলে মনে করেন না স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এদিকে, রাজধানীতে বাস পোড়ানোর ঘটনায় এই পর্যন্ত ১৪টি মামলা ও ৩২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদের মধ্যে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে ২৮ জনকে। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বেশ কয়েকটি বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। ঘটনার পর মতিঝিল, বংশাল, শাহবাগ, ভাটারা ও উত্তরা থানায় মামলা করে পুলিশ।