করোনায় আরো ৩৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১১৩৪

করোনায় আরো ৩৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১১৩৪

নিজস্ব প্রতিবেদক ; করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৭ জন পুরুষ ও ৯ জন নারী। তাদের সবাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ হাজার ১৯২জনে। এ সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ১৩৪ জন। দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৪ লাখ ৯৬ হাজার ৯৭৫ জনে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪০টি ল্যাবরেটরিতে ১২ হাজার ৭৭৬টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৩ হাজার ১৯১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৩০লাখ ৩৫হাজার ৭২৮টি। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৩৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৩১ হাজার ৫৯০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ৮ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৬ দশমিক ৮৪। আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ। গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত ও ১৮মার্চ প্রথম করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু ৭ হাজার ১৯২ জনের। তাদের মধ্যে পুরুষ ৫ হাজার ৪৮৯ জন (৭৬ দশমিক ৩২ শতাংশ) ও নারী একহাজার ৭০৩জন (২৩ দশমিক শূন্য ৬৮ শতাংশ)। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৬ জনের ত্রিশোর্ধ্ব একজন, চল্লিশোর্ধ্ব দুইজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব চারজন এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২৯ জন রয়েছেন। বিভাগ ভিত্তিক হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৬ জনের- ঢাকা বিভাগে ২০ জন, চট্টগ্রামে ৮ জন, রাজশাহীতে দুইজন, খুলনায় একজন, সিলেটে একজন, রংপুর তিনজন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের একজন রয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে বরিশাল বিভাগে করোনা আক্রান্ত কেউ মারা যাননি।