সোনাগাজীতে মাদ্রাসার ছাত্রকে পিটিয়ে জখম শিক্ষক আটক

সোনাগাজীতে মাদ্রাসার ছাত্রকে পিটিয়ে জখম শিক্ষক আটক

ফেনী প্রতিনিধি:
ফেনীর সোনাগাজীর কুঠিরহাট দারুল উলুম মাদ্রাসার চতুর্থ জামাতের এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম করার ঘটনায় মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা মো. ইসমাইল প্রকাশ নোয়াখালী হুজুরকে শনিবার (০৬ মার্চ) দিনগত রাত সাড়ে নয়টার আটক করেছেন সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, শুক্রবার বিকালে পড়া না পারার অজুহাতে মাদ্রাসার চতুর্থ জামাতের শিক্ষার্থী আসাদুল্লাহ (১২) কে বেত দিয়ে পিটিয়ে জখম করে মাদ্রাসার অফিস কক্ষে তিন ঘন্টা আটকে রাখেন।

সন্ধ্যায় মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীর মাধ্যমে ছাত্রের অভিভাবকরা খবর পেয়ে ছাত্রের মামা সুমন ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ওমর ফারুক এলাকাবাসীর সহযোগিতায় মাদ্রাসার অফিস কক্ষ থেকে ছাত্রটিকে উদ্ধার করে কুটিরহাট বাজারে নিয়ে আসেন।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা জুবায়ের হোসেন জানান, মাদরাসা শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনাটি একটি দূঃখজনক ঘটনা।

শিক্ষকের অপরাদ প্রতিষ্ঠান বহন করবে না। যে অপরাধ করবে তাকে অবশ্যই বিচারের মুখমুখি হতে হবে।

এ ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মা ফতেমা আক্তার শারমিন বাদী হয়ে রাতেই শিশু আইনে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাজেদুল ইসলাম মাদরাসার বোডিং সুপার মাওলানা মোঃ ইসমাইলকে আটক ও শিশু আইনে মামলা দায়েরের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।