আদালত প্রতিনিধি:
বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতির সহযোগী পরিচয়ে নগরীর সদর রোডে একটি শোরুমে লুটপাটের অভিযোগে পাঁচ যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। সদর রোডের বিবির পুকুরপাড়ে টপটেন শোরুমে রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও শোরুমের কর্মকর্তারা জানায়, টপটেন শোরুমে হঠাৎ ২০-২৫ জনের একটি দল প্রবেশ করে বিভিন্ন কক্ষে ঢুকে জামাকাপড় দেখতে চায় এবং বলে, যা কিছু নেব সব কিছুর দাম মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন ভাই দেবে। তারা শোরুমের মধ্যে হট্রগোল শুরু করে।
বাধা দিতে গেলে শোরুমের একাধিক কর্মচারীকে মারধর করা হয়। এরপর শোরুম কর্তৃপক্ষ ৯৯৯-এ কল দিলে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে লুটপাটকারীরা জামাকাপড়, জুতা, ঘড়িসহ যে-যার মতো করে হাতে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় পাঁচজনকে হাতেনাতে আটক করে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশে সোপর্দ করেন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। আটককৃতদের পরিচয় জানা যায়নি।

আটক যুবকরা বলেন, তারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন। কারা করেছে তাও জানেন না। তারা কেনাকাটার জন্য এখানে এসেছিলেন। উল্টো তাদের মারধর করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে শোরুমের লোকজন।

বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, ‘কে বা কারা এই কাজ করেছে আমি জানি না। বিগত দিনের ন্যায় আবারও আমার বিরুদ্ধে কেউ ষড়যন্ত্র করে আমার নাম ব্যবহার করতে চাইছে।’
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পাঁচজনকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে এবং এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী কোতোয়ালি মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান।