নিখোঁজ’ অভিনেতা প্রসঙ্গে অভিযোগ: শামীমের ‘ঝামেলা’ আছে

নিখোঁজ’ অভিনেতা প্রসঙ্গে অভিযোগ: শামীমের ‘ঝামেলা’ আছে

বিনোদন ডেক্স:
নিখোঁজ অভিনেতা শামীম আহমেদের খোঁজ মিলেছে। তবে কেঁচো খুঁড়তে গিয়ে এখন সাপও বেরুচ্ছে!

২২ মার্চ রাতে গাজীপুর থেকে স্ত্রী আশামনির সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলেও মঙ্গলবার সন্ধ্যা নাগাদ ঢাকার বাসায় ফেরেননি তিনি। উল্টো তার শাশুড়ি নাজমা বেগম জানান, তারা জানতে পেরেছেন শামীম গাজীপুর থেকে আজ আবারও সিলেটে চলে গেছে!

তবে কি সিলেটে শামীমের আরেকটি সংসার রয়েছে! এমন প্রশ্নের জবাবে নাজমা বলেন, ‘সেটা জানি না বাবা। না জেনে তো কিছু বলা ঠিক না।’

শামীমের স্ত্রী আশামনির ঘরে তিন পুত্র সন্তান। স্ত্রী ও সন্তানদের তেমন খোঁজ-খবর কখনোই রাখে না বলেও অভিযোগ করেন নাজমা। তার ভাষ্যে, ‘শামীমের বেশিরভাগ কাজ-আড্ডা উত্তরার দিকে। সিলেটেও যায় শুনি। আর তো কিছু বলতে পারি না। এভাবে সে প্রায়ই নিখোঁজ হয়ে যায় আমাদের কাছ থেকে। বাসায় এলেও আমার মেয়ের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে।’

১৬ মার্চ সকালে একটি শুটিংয়ের কাজে সিলেট গিয়েছিলেন শামীম আহমেদ। শুটিং শেষে সেখান থেকে ঢাকায় ফেরার জন্য বাসে ওঠেন ২০ মার্চ রাতে। সে সময় অপরিচিত নাম্বার থেকে ফোন করে স্ত্রী আশামনিকে জানান, তার ফোন চুরি হয়ে গেছে। ঢাকায় আসার জন্য বাসে উঠেছেন। তারপর শামীমের কোনও খোঁজ পাচ্ছিলেন না তার স্ত্রী।

গণমাধ্যমে শামীমের নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ প্রকাশের পর সোমবার (২২ মার্চ) রাতে স্ত্রীকে ফোন করেন শামীম। জানান, গাজীপুরের উলুখোলায় শুটিং করছেন তিনি। নিজের মোবাইল না থাকায় কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি। তবে বাসায় ফিরতে রাত দেড়টা-দুইটা বাজবে। এরপর রাত ৩টা পর্যন্ত স্ত্রী-সন্তান-শাশুড়ি অপেক্ষা করলেও শামীমের দেখা পাননি তারা।

নাজমা বলেন, ‘শামীম মাঝে মাঝেই গায়েব হয়ে যায়। কিন্তু এবার মনে হইতেছে আমার মেয়ের কাছ থেকে গায়েব হইতে চায়। যাইতে হলে একটা কথা বলে যাইতে হবে। তার তো তিনটা ছেলে। এদের তো দেখতে হবে।’

এদিকে শামীম আহমেদের ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য বা বর্তমান অবস্থান প্রসঙ্গে জানা যায়নি। নাজমা-আশামনিদের কাছেও শামীমের বর্তমান কোনও ফোন নম্বর নেই।

তিন দশক ধরে অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত শামীম আহমেদ। কমেডি চরিত্রে অভিনয় করে দারুণ জনপ্রিয়তা পান তিনি। অভিনয়ে তার পথচলা শুরু ১৯৯৯ সালে আফসানা মিমি পরিচালিত ‘বন্ধন’ ধারাবাহিক দিয়ে। এরপর নিয়মিতই নাটকে কাজ করেছেন তিনি।