প্রথম ধাপে ভোট হবে যেসব ইউনিয়ন পরিষদে

প্রথম ধাপে ভোট হবে যেসব ইউনিয়ন পরিষদে

মো: রানা সন্যামত
আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩২৩ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে সকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এদিনে ষষ্ঠ ধাপে ৯টি পৌরসভায়ও ভোট হবে। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সহযোগিতা চেয়েছে কমিশন। কমিশনের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সাত দফা নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

সূত্র জানিয়েছে, নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতা প্রদান ও নির্বাচন কর্মকর্তা (বিশেষ বিধান) আইন, ১৯৯১-এর বিধান অনুসরণ করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে ১৪ মার্চ চিঠি পাঠায় কমিশন। সাত দফা নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সংস্থাপন অধিশাখা থেকে ২৩ মার্চ এ সংক্রান্ত নির্দেশনা সম্বলিত নোটিশ জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

নির্বাচন পরিচালনায় সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্বশাষিত সংস্থার কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্য থেকে প্রয়োজনীয় সংখ্যক প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং, ও পোলিং অফিসার নিয়োগ করতে হবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা, ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আসবাবপত্র, স্থান, স্থাপনা ভোটকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ নির্দেশনায়ে আরও বলেছে, সংবিধানের ১২৬ অনুচ্ছেদ এবং গনপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২-এর অনুচ্ছেদ ৫ অনুসারে সরকারের নির্বাহী কর্তৃপক্ষ এবং সকল কর্তৃপক্ষকে অর্পিত দায়িত্ব নিরপেক্ষভাবে পালন করতে হবে।

নিবাচনের তফশিল ঘোষণার তারিখ থেকে ফলাফল ঘোষণার পর ১৫ দিন পার না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে পরামর্শ না করে নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনও কর্মকর্তাকে বদলি করা যাবে না। ছুটি দেওয়াও যাবে না।

উল্লেখ্য, নির্বাচনি আইন অনুযায়ী গত ২১ মার্চের মধ্যে ৭৫০টি ইউপিতে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রস্তুত না থাকায় সেটি সম্ভব হয়নি।

এ প্রসঙ্গে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ইউসুফ হারুন জানিয়েছেন, গনপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ অনুসরণ করেই চলছে প্রশাসন। কোথাও ব্যত্যয় হয়নি।

এ প্রসঙ্গে পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসকরা জানিয়েছেন, নির্দেশনা সম্বলিত নোটিশ আমরা পেয়েছি। এ নিয়ে কাজ করছি।

সাবেক একজন নির্বাচন কমিশনার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, সব নির্বাচনেই এ ধরনের নির্দেশ থাকে। তবে তা কতটা বাস্তবায়ন হয় সেটি মুখ্য বিষয়।

উল্লেখ্য, প্রথম ধাপে যেসব ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হবে সেসব ইউপিগুলো হচ্ছে- পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলার পাংগাশিয়া, আংগারিয়া, মুরাদিয়া। বাউফল উপজেলার ধুলিয়া, কেশবপুর, বগা, মদনপুর, নাজিরপুর, চন্দ্রদ্বীপ। দশমিনা উপজেলায় আলীপুর, বহরমপুর, বাঁশবাড়িয়া। গলাচিপা উপজেলায় আমখলা, গোলখালী, চিকনিকান্দি ও রতনদী তালতলী। রংপুরের পীরগাছা উপজেলার কল্যাণী। বগুড়ার দুপচাচিয়ার তালোড়। খুলনা কয়রার আমাদি, বাগালী, মহেশ্বরীপুর, মহারাজপুর, কয়রা, উত্তর বেকাশী ও দক্ষিণ বেদকাশী। দাকোপের পানখালী, দাকোপ, লাউডোব, কৈলাশগঞ্জ, সুতারখালী, কামারখোলা, তিলডাঙ্গা, বাজুয়া ও বানিশান্তা। বটিয়াঘাটার গংগারামপুর। দিঘলিয়ার গাজীরহাট, বারাকপুর, দিললিয়া, সেনহাটা, আড়ংঘাটা, যোগীপুল। বাগেরহাট ফকিরহাটের বেতাগা, লখপুর, পিলজংগ, ফকিরহাট, বাহিরদিয়ামানসা, নলধা মৌভোগ, শুভদিয়া। মোল্লাহাটের উদয়পুর, চুনখোলা, কোদালিয়া, আটজুড়ি। চিতলমারীর বড়বাড়ীয়া, হিজলা, শিবপুর, চিতলমারী চরবানিয়ারী। কচুয়ার গজালিয়া, ধোপাখালী, মঘিয়া, কচুয়া, গোপালপুর, রাড়ীপাড়া, বাধাল। রামপালের গৌরম্ভা, বাইনতলা, হুড়কা, মল্লিকের বেড়, বাঁশতলী। মোংলার চাঁদপাই, বুড়িরডাংগা, চিলা, মিঠাখালী, সোনাইলতলা, সুন্দরবন। মোরেলগঞ্জের পঞ্চকরন, দৈবজ্ঞহাটী, চিংড়াখালী, হোগলাপাশা, বনগ্রাম, বলইবুনিয়া, হোগলাবুনিয়া, বহরবুনিয়া, নিশানবাড়ীয়া, মারেলগঞ্জ, খাউলিয়া। শরণখোলার ধানসাগর, খোন্তাকাটা, রায়েন্দা, সাউথখালী।

সাতক্ষীরা কলারোয়ার কয়লা, হেলাতলা ও যুগীখালী। তালার ধানদিয়া, তেঁতুলিয়া, তালা, ইসলামকাটি, মাগুরা, খেসরা, জালালপুর ও খলিলনগর। বরিশাল সদরের কাশিপুর, চরবাড়িয়া, জাগুয়া, টংগীবাড়ীয়া। বাকেরগঞ্জের চরাদি, দাড়িয়াল, দুধল, ফরিদপুর, কবাই, নলুয়া, কলসকাঠি, গারুড়িয়া, ভরপাশা, রঙ্গাশ্রী ও পাদ্রীশিবপুর। উজিরপুরের সাতলা, জল্লা, গুটরা, শোলক, বোরোকোঠা। মুলাদীর নাজিরপুর, সফিপুর, গাছুয়া, চরকালেখা, মুলাদী, কাজিরচর। মেহেন্দিগঞ্জের মেহেন্দিগঞ্জ, ভাষানচর। বাবুগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীরনগর, কেদারপুর, দেহেরগতি, মাধবপাশা। গৌরনদীর বাটাজোড়, সরিকল। হিজলার হরিনাথপুর, মেমানিয়া, গুয়াবাড়িয়া, বড়জালিয়া। বানারীপাড়ার বিশারকান্দি, ইলুহার, চাখার, সালিয়াবাকপুর, বাইশারি, বানারীপাড়া, উদয়কাঠি। বরগুনা সদরের বরদরখালী, গৌরিচন্না, ফুলঝুড়ি, কেওড়াবুনিয়া, আয়লাপাতাকাটা, বুড়িচর, চলুয়া, বরগুনা, নলটোনা। আমতলীর গুলিশাখালী, কুকুয়া, আঠারগাছিয়া, হলদিয়া, চাওড়া, আরপাঙ্গাশিয়া। বেতাগীর বিবিচিনি, বেতাগী, হোসনাবাদ, মোকামিয়া। বামনার বুকাবুনিয়া, বামনা, রামনা, ডৌয়াতলা। পাথরঘাটার কালমেঘা, কাঁকচিড়া, কাঁঠালতলী।

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার ভিটাবাড়িয়া, নদমুলা-শিয়ালকাঠী, তেলিখালী, ধাওয়া ও গৌরিপুর। ইন্দুরকানীর বালিপাড়া। কাউখালীর আমড়াজুড়ি, কাউখালী সদর। সদরের কদমতলা, কলাখালী, টোনা, শারিকতলা। মঠবাড়িয়ার তুষখালী, মিরুখালী, বেতমোর রাজপাড়া, আমড়াগাছিয়া, সাপলেজা, হলতাগুলিশাখালী। নেছারাবাদের আটঘর কুড়িয়ানা, বলদিয়া, গুয়ারেখা, দৈহারী, সোহাগদল, সারেংকাঠী, সুটিয়াকাঠী, স্বরুপকাঠী। নাজিরপুরের মাটিভাংগা, মালিখালী, নাজিরপুর, সেখমাটিয়া।

ঝালকাঠি সদরের গাবরামচন্দ্রপুর, বিনয়কাঠী, নবগ্রাম, কীর্তিপাশা, বাসন্ডা, গাবখানধানসিড়ি, শেখেরহাট, নথুল্লাবাদ। নলছিটির ভৈরবপাশা, মগড়, কুলকাঠি, কুশঙ্গল, নাচনমহল, রানপাশা, সুবিদপুর, সিদ্ধকাঠি, দপদপিয়া, মোল্লারহাট। রাজাপুরের সাতুরিয়া, শুক্রগড়, রাজাপুর, গালুয়া, বড়ইয়া, মঠবাড়ী। কাঠালিয়ার চেচরীরামপুর, পাটিখালঘাটা, আমুয়া, কাঠালিয়া, শৌলজালিয়া, আওরাবুনিয়া।

ভোলা বোরহানউদ্দিনের গঙ্গাপুর, সাচরা। তজুমদ্দিনের চাঁদপুর, চাচরা, সম্ভুপুর। চরফ্যাশনের চরমাদ্রাজ, চরকলমি, হাজারীগঞ্জ, এওয়াজপুর, জাহানপুর। মনপুরার হাজিরহাট, উত্তর সাকুচিয়া, দক্ষিণ সাকুচিয়া। নরসিংদী পলাশের গজারিয়া, ডাংগা। গাজীপুরের কালীগঞ্জের নাগরী, তুমুলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালিয়া, বাহাদুসাদী, জামালপুর, মোক্তারপুর।

মাদারীপুর শিবপুরের শিবচর, পাঁচ্চর, মাদবরেরচর, কুতুবপুর, কাদিরপুর, দ্বিতীয়খন্ড, ভান্ডারীকান্দি, বাঁশকান্দি, বহেরাতলা উত্তর, বহেরাতলা দক্ষিণ, নিলখী, শিরুয়াইল, দত্তপাড়া। সুনামগঞ্জের ছাতকের ভাতগাও, নোয়ারাই, সিংচাপইড়। চাঁদপুরের হাইমচরের আলগী দুর্গাপুর উত্তর, নীল কমল, হাইমচর। লক্ষ্মীপুরের রামগতির চর বাদাম, চর পোড়াগাছা, চর রমিজ, চর গাজি। কমলনগরের চর ফলকন, হাজিরহাট, তোরাবগঞ্জ। নোয়াখালীর সুবর্ণচরের চরবাটা, চরক্লার্ক, চরওয়াপদা, চর আমানউল্যাহ, পূর্বচরবাটা, মোহাম্মদপুর। কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুর, চরহাজারী। হাতিয়ার চর ঈশ্বর, চরকিং, তমরদ্দি, সোনাদিয়া, বুড়িরচর, জাহাজমারা, নিঝুমদ্বীপ।

চট্টগ্রাম সন্দ্বীপের বাউরিয়া, গাছুয়া, সন্তোষপুর, আমানউল্ল্যা, হরিশপুর, রহমতপুর, আজিমপুর, মুছাপুর, মাইটভাঙ্গা, সারিকাইত, মগধরা, হারামিয়া, দীর্ঘাপাড়। কক্সসবাজার মহেশখালীর ধলঘাটা, হোয়ানক, মাতারবাড়ী, কুতুবজোম। কুতুবদিয়ার আলী আকবর ডেইল, বড়ঘোপ, দক্ষিণধুরং, কৈয়ারবিল, লেমশীখালী, উত্তরধুরুং। টেকনাফের হ্নীলা, সাবরাং, সেন্টমার্টিন, টেকনাফ ও হোয়াইক্যং।

একই তারিখে যে ৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে সেসব পৌরসভাগুলো হচ্ছে- ঝালকাঠি, লাঙ্গলকোট, ভাঙ্গা, চকরিয়া, সোনাগাজী, কবিরহাট, মহেশখালী, সেতাবগঞ্জ ও দেবীগঞ্জ। এসব পৌরসভায়ও ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে।