বাকেরগঞ্জ পাদ্রীশিবপুর কিশোরী ধর্ষণে শিকার ৭০ হাজার টাকায় রফাদফা- মানবতারকণ্ঠ

বাকেরগঞ্জ পাদ্রীশিবপুর কিশোরী ধর্ষণে শিকার ৭০ হাজার টাকায় রফাদফা- মানবতারকণ্ঠ

নজরুল ইসলাম আলীম:
বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১৩ নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের শাকবুনিয়া রঘুনাথপুর গ্রামে পঞ্চম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রীর ধর্ষণে ৭০ হাজার টাকায় হয়েছে বলে জানা যায়। ভিকটিমের মাতা এবং দাদির এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে জানায় ওই গ্রামের মোঃ কাদের হাওলাদারের কুলাঙ্গার পুত্র রাজ্জাক হাওলাদার একই গ্রামের সহায় সম্বলহীন হতদরিদ্র মোঃ কবির গাজীর কন্যা পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে গত ২৭ রমজানের সময় রাত আনুমানিক ০৯ঃ০০ ঘটিকার সময় জমিজমা চাষাবাদের কথা বলে বসত ঘরে একা পেয়ে লম্পট রাজ্জাক হাওলাদার এক পৈশাচিক ও আপত্তিকর ঘটনা ঘটায়। ঐদিন ওই ঘটনাটি ভিকটিমের পিতা বিষয়টি দেখতে পেলে লম্পট রাজ্জাকের পিতা কাদের হাওলাদারকে জানালে তিনি বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য ভিকটিমের পিতাকে জানান।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় লম্পট রাজ্জাকের শ্যালক বিল্লাল ঢাকার একজন ধর্নাঢ্য ও প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ার কারণে বিষয়টি ধামাচাপা দিয়ে আসতে ছিল। অতঃপর বিষয়টি বিভিন্ন মিডিয়া অঙ্গনে জানাজানি হলে ভিকটিমের পিতা বিগত ইং ২২/০৫/২১ তারিখে বাকেরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করিলে লম্পট রাজ্জাকের শ্যালক বিল্লাল বিগত ইং ২৩/০৫/২১ তারিখে ঢাকা থেকে বিমান যোগে আসিয়া বিগত ইং ২৪/০৫/২১ তারিখে লম্পট রাজ্জাকের ভায়রা দুর্গাপুর নিবাসী শাহজাহান ভূঁইয়ার পুত্র স্থানীয়ভাবে দালাল নামে খ্যাত হানিফ ভূঁইয়ার মাধ্যমে ৭০ হাজার টাকা ভিকটিমের পিতাকে নগদ প্রদান করে এক রফাদফা হয় এবং লম্পট রাজ্জাকের পিতা কাদের হাওলাদার তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ওই রফাদফায় জুতাপিটা করে বিষয়টি নিষ্পত্তি করেন।

উক্ত বিষয়ে বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির এক বিজ্ঞ আইনজীবীর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান-যেহেতু বিষয়টি ধর্ষণ সংক্রান্ত সেহেতু উক্ত বিষয়টি স্থানীয়ভাবে আপোষ মিমাংসার বিধান আইনে নেই।(চলবে)