বাকেরগঞ্জ পুত্রের হাতে মা লাঞ্ছিত প্রতিবাদ করলে ভগ্নিপতিকে কুপিয়ে জখম – মানবতারকণ্ঠ

বাকেরগঞ্জ পুত্রের হাতে মা লাঞ্ছিত প্রতিবাদ করলে ভগ্নিপতিকে কুপিয়ে জখম – মানবতারকণ্ঠ

মো. রানা সন্যামত:
বাকেরগঞ্জ: উপজেলার ১৩ নং পাদ্রিশিবপুর ইউনিয়নের বড় পূর্ব মহেশপুর গ্রামে পুত্রের হাতে মা লাঞ্ছিত হওয়ার প্রতিবাদে আপন ভগ্নিপতিকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহতের এক অভিযোগ পাওয়া গেছে।বাকেরগঞ্জ থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায় যে, পূর্ব মহেশপুর গ্রামের মোঃ নুর ইসলাম গাজীর বখাটে পুত্র মোঃ ইউসুফ গাজী তার মাতা ৬৫ বছরের বৃদ্ধা মোসাঃ চিনিবরু বেগমকে প্রতিনিয়ত মারধোর করিয়া আসিত এবং কোন প্রকার দেখাশুনা ও আহার না দেওয়ার কারণে তাহার জামাতা মোসাঃ আমিনা বেগমের স্বামী মোঃ কালাম আকন বিভিন্ন সময়ে প্রতিবাদ করিয়া সহ্য করতে না পেরে তাহার নিজ বাড়িতে দেখাশোনা করার জন্য নিয়ে আসিলে তাহার জের ধরে ঘটনার দিন বিগত ইং গত ১ জুন বিকাল আনুমানিক  ৬ টার সময় বাকেরগঞ্জ থানাধীন ১৩ পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের পূর্ব মহেশপুর জনৈক সোহরাব মল্লিকের বসতঘরের সামনের রাস্তার দক্ষিণ পাশে সন্ত্রাসী ইউসুফ ও তার স্ত্রী দুলু বেগম ৬৫ বছরের বৃদ্ধাকে অশালীন ভাষায় গালাগালি ও মারধর করিতে থাকিলে জাহাজ জামানা হিসেবে সহ্য করতে না পেরে তাহার প্রতিবাদ করিলে দুলু বেগমের হুকুমে সন্ত্রাসী ইউসুফের হাতে থাকা ধারালো দা দিয়ে খুন করার উদ্দেশ্যে কালামের মাথায় কোপ দিলে নিমেষের মধ্যে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।রক্তাক্ত অবস্থায় কালামকে বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাহার অবস্থার অবনতি দেখিলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বর্তমানে কালাম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জারত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন।উক্ত বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার এস আই আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনাস্থলে সরেজমিনে পরিদর্শন করে মানবতার কণ্ঠকে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে বলে জানাান। আমরাা আরো তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেব।