স্থানীয় সাংসদের অবহেলায় সড়কের দুর্ভোগে জনসাধারণ। মানবতারকণ্ঠ

স্থানীয় সাংসদের অবহেলায় সড়কের দুর্ভোগে জনসাধারণ। মানবতারকণ্ঠ

বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:
সড়কের মরণ ফাঁদে পড়ে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে উত্তর বাউফলের সূর্যমনি, কেশবপুর, ধুলিয়া,কালিশুরী, কাছিপাড়া ইউনিয়নের পথচারীসহ স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার ছাত্রছাত্রীএবং কোমলমতি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
এমন ঘটনা ঘটেছে উপজেলা সড়ক হইতে কালিশুরী কাছিপাড়া বাজার বগা আর এইচডি সড়ক ভায়া পটুয়াখালী মহাসড়কের কালিশুরী অংশ টুকু।
জানা যায় যে গত ২০২০-২১ অর্থবছরের কাছিপাড়া বাজার থেকে শুরু করে ছিটকা বাজার পূর্ব পাশ পোনাহুড়া জুনিয়র মাদ্রাসা সংলঙ্গ পশ্চিমপাশ পর্যন্ত রাস্তাটি সংস্কার করা হয়।কাছিপাড়া টু কালিশুরী রাস্তাটির সবচেয়ে বেশি খানাখন্দে ভরা বড় বড় দাঙ্গায় পরিণত মাদ্রাসার পূর্ব দিকে ১০০ মিটার সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার অংশটুকু মেরামত করা হয় নাই।এই অংশটুকু মেরামত না করায় সড়কটি যাতায়াতের অনউপযোগী হওয়ায় দূরপাল্লার কোনো যানবাহন চলাচল করছে না।তা১৬ কিলোমিটার পথ ঘূরে বাউফল হয়ে পটুয়াখালী বা বরিশালের ঢাকার উদ্দেশ্যে যাতায়াত করতে হয়।
একপর্যায়ে রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পথে। এই রাস্তাটি এতো বেশি বেহাল অবস্থা যে স্থানীয় জনসাধারণ পায়ে হেঁটেও রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে পারছে না। এই সড়কের মরণ ফাঁদে পড়ে প্রতিনিয়ত হতে হচ্ছে সড়ক দুর্ঘটনায় মত বড় বড় দুর্ঘটনায় শিকার। এই বিষয়ে স্থানীয় সংসদ বাউফল আসনের এমপি আ স ম ফিরোজ মহোদয়কে স্থানীয় জনগণ ও নেতাকর্মী একাধিকবার জানানো হলেও তিনি গুরুত্বসহকারে আমলের না নেওয়ায় দূর্ভোগের শিকার হতে হয়েছে পথচারী যাত্রীদের। এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সুলতান আহমদের কাছে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান রাস্তাটি খুবই বেহাল অবস্থায় পরিণত যথাসময়ে এর কাজ শুরু করা হবে।
পটুয়াখালী নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শাহাবুদ্দিন খানের কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রাস্তা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে এ বিষয়ে আমার কাছে অনেকে অভিযোগ দিয়েছেন। কিন্তু কেন এখন পর্যন্ত ওই রাস্তাটুকু উপজেলা প্রকৌশলী সুলতান আহমেদ করে নাই এবিষয়ে আমি জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং অতি শীগ্রই রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতেছি।