সরকারের ভাবমূর্তি করতেই পীরগঞ্জে হামলা: তথ্যমন্ত্রী

সরকারের ভাবমূর্তি করতেই পীরগঞ্জে হামলা: তথ্যমন্ত্রী

মানবতারকন্ঠ রিপোর্ট:
সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করার হীন উদ্দেশ্যেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পীরগঞ্জে হামলা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘সরকার এই অপশক্তিকে কঠোর হস্তে দমন করতে বদ্ধপরিকর।’ সোমবার (১৮ অক্টোবর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, সারাদেশেই তাদের এ ধরনের ঘটনা আরও ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল।’ সেগুলো সরকারের কঠোর পদক্ষেপের কারণে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভবপর হয়েছে উল্লেখ করে সবাইকে এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ও সতর্ক হতে বলেন তিনি।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘পীরগঞ্জে রাতের অন্ধকারে বিভিন্ন বাড়িতে আগুন দেওয়া হলো। এটি খুবই স্পষ্ট যে পীরগঞ্জকে তারা এ কারণেই বেছে নিয়েছে, যাতে সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যায়।’

চাঁদপুরে যারা এই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে তাদের নিবৃত্ত করতে পুলিশ গুলি চালিয়েছে এবং আমাদের এ পদক্ষেপ পার্শ্ববর্তী ভারতেও অনেক পত্র-পত্রিকা প্রশংসা করেছে বলে উল্লেখ করেন তথ্যমন্ত্রী।

গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে দেশের সব গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক শক্তির প্রতি দুষ্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার অনুরোধ জানিয়ে ড. হাছান বলেন, ‘আমাদের দলের নেতাকর্মীদের ইতোমধ্যেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পাশে থাকার জন্য, তারা দাঁড়িয়েছে। আরও বহু জায়গায় এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু আমাদের দলের নেতাকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়া এবং মানুষের পাশে থাকার কারণে সেটি করা সম্ভব হয়নি।’

মন্ত্রী বলেন,‘বাংলাদেশে বিএনপি-জামায়াতসহ ধর্মান্ধগোষ্ঠী বিভিন্ন সময় নানা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। পদ্মা সেতু নির্মাণ, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের সময় তারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে এবং এই দুর্গাপূজাকে উপলক্ষ করে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা চালিয়েছে। দেশকে অস্থিতিশীল করা ও সরকারকে বেকায়দা ফেলার জন্য রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে যে এটি করা হয়েছে, তা খুবই স্পষ্ট। সরকার কঠোর হস্তে এসব অপচেষ্টা দমন করছে, মামলা ও গ্রেফতার হয়েছে।’

এ দিন সকালে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বনানী কবরস্থানে শহীদ শেখ রাসেল এবং ১৫ আগস্ট শহীদদের সমাধিতে পুষ্প অর্পণ ও দোয়ায় অংশ নেন তথ্যমন্ত্রী।