চোখ-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

চোখ-মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

মো. সবুজ হাওলাদার :
পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ অভিযোগে রোববার রাতে রাঙ্গাবালী থানায় একটি মামলা করা হয়। রাতেই ওই মামলায় প্রধান অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা হাসান মৃধাকে (৪২) উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের কোড়ালিয়া বাজার থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
এর আগে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ছোটবাইশদিয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।
গ্রেফতার হাসান মৃধা ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।
সোমবার সকালে তাকে গলাচিপা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। পুলিশ জানায়, রোববার রাতে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর মা বাদী হয়ে হাসান মৃধার নাম উল্লেখ করে আরও একজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেন।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গ্রেফতার হাসান মৃধা অজ্ঞাতনামা একজন আসামি নিয়ে গৃহবধূর স্বামীর ঘরে ঢুকে তার চোখ ও মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে ফেলে। গরম বস্তু দিয়ে গৃহবধূর বাম হাতে এবং বাম কোমরে ছেকা দেয়। একপর্যায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি গৃহবধূর দুই হাত চেপে ধরে রাখে। আর হাসান মৃধা তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান বলেন, এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হবে। অপর আসামিকে শনাক্ত ও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।