বরিশালের উন্নয়নের জন্য একটি প্রকল্প নেয়া হচ্ছে -পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী। মানবতারকন্ঠ

বরিশালের উন্নয়নের জন্য একটি প্রকল্প নেয়া হচ্ছে -পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী। মানবতারকন্ঠ

বরিশাল প্রতিনিধি।
পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্নেল অব. জাহিদ ফারুক শামীম এমপি বলেছেন, বিগত ২৫ বছরে সদর আসনের এমপি এলাকার উন্নয়নে খেয়াল রাখেনি। নিজেদের ভাগ্যে উন্নয়নে চেষ্টা করেছে। এ আসনে এমপি হয়ে দেখলাম রাস্তা নেই, লাইট নেই, টিউবওয়েল নেই। কোন কাজ ঠিকমতো হয়নি। আমার আশ্চর্য লাগে তবুও একজনকে এতবার ভোট দিয়ে সংসদ সদস্য কিভাবে বানালেন। বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের বিল্লবাড়ি বেকারির পোল সংলগ্ন বালুর মাঠে অনুষ্ঠিত ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, একজনকে দায়িত্ব দিয়েছি। সদর উপজেলার সব রাস্তাঘাটের কি অবস্থা, কোন ইউনিয়নে কতগুলো স্কুল-মসজিদ আছে এগুলোর ছবি সহ তথ্য নেয়ার জন্য। এ জন্য আমি ১৫ দিনের সময় দিচ্ছি। এরপরে বরিশালের উন্নয়নের জন্য একটি প্রকল্প নিবো। যেটা পাশ করিয়ে আগামী বছর থেকে প্রকল্পের কাজ শুরু করা সম্ভব হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এটা হলে বরিশাল সদর উপজেলার সব জায়গাতে সার্বিকভাবে উন্নয়নের ছোয়াটা লাগবে। তিনি বলেন, বরিশাল শহরে বর্ষাকালে জলাবদ্ধতা হয়। অল্পতেই হাটু সমান পানি চলে আসে। এটা কিন্তু দীর্ঘদিনের সমস্যা ছিলো। বিএনপির শাসনামলে তারা খালগুলো বন্ধ করে রাস্তা বানিয়েছে। বরিশাল নদী মাতৃক এলাকা। এখানে বৃষ্টির পানিগুলো খালের মাধ্যমেই নদীতে গিয়ে পরতো। কিন্তু সেগুলো সব বন্ধ হয়ে গেছে।

মন্ত্রী বলেন, বরিশালের সাতটি খাল নিয়ে প্রকল্প হাতে নিয়েছি। আগামী একমাসের মধ্যে প্রকল্পটা পাশ হয়ে গেলে জেলা প্রশাসন ও সিটি করপোরেশন মিলে কাজ শুরু করবে। এটা হলে পরে আগামীতে রাস্তাঘাটে জলাবদ্ধতা হবে না।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিলো সোনার বাংলা গড়ার। তার স্বপ্ন তিনি বাস্তবায়ন করতে পারেননি কিন্তু একটি শক্ত ভিত রচনা করে গিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা উন্নয়নশীল দেশে পৌছে গিয়েছি। আমরা ২০৩০ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পৌছাবো। ২০৪১ সালের মধ্যে পৃথিবীর অন্যান্য বড় বড় দেশের মতো সমৃদ্ধশালী দেশের কাতারে পৌছাতে সক্ষম হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর বুকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পৃথিবীর অন্যান্য রাষ্ট্রনায়কদের কাছে একজন সন্মানিত ব্যক্তি হিসেবে সীকৃতি লাভ করেছে। প্রধানমন্ত্রী অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন রাষ্ট্র নায়ক এবং তার কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। প্রধানমন্ত্রীর কারনে অর্থনৈতিকভাবে একটা সন্মানিত জায়গাতে পৌছাতে সক্ষম হয়েছি।

জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-এলজিইডি এর নির্বাহী প্রকৌশলী শরীফ মোঃ জামাল উদ্দিন, বিসিসিবি’র পরিচালক আলমগীর খান আলো, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান মধু, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মো. নিজামুল ইসলাম নিজাম, যুগ্ম আহবায়ক মাহমুদুল হক খান মামুন প্রমুখ।

উল্লেখ্য সদর উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে ১৭ কোটি ৫৪ লাখ টাকার ১১ টি কাজের উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী।