অশনির প্রভাবে বরিশালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। মানবতারকণ্ঠ

অশনির প্রভাবে বরিশালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। মানবতারকণ্ঠ

বরিশাল প্রতিনিধি।
ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে বরিশালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। পরবর্তী ২৪ ঘন্টায় ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

সেই সঙ্গে বর্জ্যপাত,বাতাসের গতিবেগ ৫০/৬০ কিলোমিটার বেগে এবং জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের তুলনায় ৩/৪ ফুট বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন বরিশাল আবহাওয়া অফিস।

সমুদ্র বন্দরসমূহে ২ নম্বর হুশিয়ারী সংকেত থাকলেও স্থানীয় নদীবন্দরসমূহে ১ নম্বর সর্তক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আজ সোমবার (৯ মে) বেলা সোয়া ১২ টার দিকে বরিশালে শুরু হয় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়া বিকাল ৫ টার পড়ে বৃষ্টি শুরু হয়। এরপর থেকে থেমে থেমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এসময় বাতাসের গতিবেগ স্বাভাবিক থাকলেও আকাশ মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। এতে রাস্তা ঘাট ফাঁকা হলেও শ্রমজীবী মানুষের আনাগোনা রয়েছে।

বরিশাল আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র পর্যবেক্ষক মাসুদ রানা রুবেল জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে বরিশালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে । পরবর্তী ২৪ ঘন্টায় ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে বর্জ্যপাত,বাতাসের গতিবেগ ৫০/৬০ কিলোমিটার বেগে বয়ে যেতে পারে।

এসময় উপকূলীয় জেলাসমূহ ও দ্বীপ-চরাঞ্চলে জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের তুলনায় ৩/৪ ফুট বাড়তে পারে। ঘূর্ণিঝড় অশনির সমুদ্র বন্দরসমূহে ২ নম্বর হুশিয়ারী সংকেত থাকলেও স্থানীয় নদীবন্দরসমূহে ১ নম্বর সর্তক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

অপরদিকে ঘূর্ণিঝড় অশনি নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে বরিশালসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলের উপকূলবাসীর মধ্যে। সোমবার সকাল থেকে বরিশালসহ উপকূলীয় এলাকাগুলোর আকাশে মেঘের সঞ্চার ও বেশ কিছু জায়গায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ায় জনমনে অশনি আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

তবে ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের কথা মাথায় রেখে বিভাগীয় কমিশনারের নির্দেশে জেলা পর্যায়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির নেতৃবৃন্দরা ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন।

অশনি মোকাবেলায় বরিশাল বিভাগের ৪ হাজার ৯১৫টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তত করা হয়েছে। পাশাপাশি সিপিপি ভলান্টিয়ারদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে।