ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাব পড়েনি বরিশালে। মানবতারকণ্ঠ

ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাব পড়েনি বরিশালে। মানবতারকণ্ঠ

বরিশাল প্রতিনিধি।
ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে গত দু’দিন ধরে বরিশাল জেলার আকাশে মেঘের ঘনঘটা থাকলেও তেমন একটা বৃষ্টির দেখা মেলেনি। সোমবার খানিকটা সময় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হলেও আজ মঙ্গলবার জেলায় কোনো বৃষ্টির দেখা নেই।

বরিশাল আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক মাহফুজুর রহমান বলেন, ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে বরিশালে কোথাও কোথাও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। তবে ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে বজ্রপাত, বাতাসের গতিবেগ ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বয়ে যেতে পারে।

এ দিকে বৃষ্টির কারণে মাঠের পাকা ধান ও রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকলেও বরিশালের কৃষকরা নিরাপদে ফসল কেটে ঘরে তুলেছে বলে জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ী বরিশালের উপ-পরিচালক মো. হারুন-অর-রশিদ বলেন, অশনির প্রভাবে গত দু’দিন ধরে বরিশালে যে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হয়েছে তাতে ফসলের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তাছাড়া মাত্র ১৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এ বৃষ্টিতে তেমন কোথাও পানি জমেনি।

তিনি আরো বলেন, গত কয়েক বছরের তুলনায় এবছর ফসলের বাম্পার ফলন হয়েছে বরিশালে। গতকাল (৯ মে) জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের নন্দপাড়া গ্রামে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের আয়োজনে পতিত জমিতে বোরো ধান আবাদের ফসল কর্তন উৎসব ও মাঠ দিবস উনুষ্ঠানে এসে ফসলের ভালো ফলন দেখে বরিশালকে পুনরায় বাংলাদেশের শস্যভাণ্ডারে পরিণত হওয়ার কথা ব্যক্ত করেন কৃষিমন্ত্রী মো. আবদুর রাজ্জাক। তাছাড়া এবার কৃষকরা নির্ধারিত সময়ে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারবে বলে জানান এ কর্মকর্তা।