দূর্গাপাশা নদীভাঙ্গন রোধ প্রকল্পের কাজে অনিয়ম ওদূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে মানবতারকন্ঠ

দূর্গাপাশা নদীভাঙ্গন রোধ প্রকল্পের কাজে অনিয়ম ওদূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে মানবতারকন্ঠ

বাকেরগঞ্জ বরিশাল প্রতিনিধি।
বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপাশা ইউনিয়নের তেতুলিয়া নদীতে নদী ভাঙ্গন রোধ প্রকল্পের কাজে অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জিও ব্যাগে ভালো মানের বালু ভরে তা নদীর পাশে দেয়ার কথা থাকলেও সেই ব্যাগে নিন্মমানের কাঁদাযুক্ত বালু দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে। দূর্নীতির প্রতিবাদ করায় ইউপি চেয়ারম্যানে হানিফ তালুকদারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের
উপ সহকারী প্রকৌশলী মো: রেজাউল করিম বাকেরগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেন।
বাকেরগঞ্জ দূর্গাপাশা ইউনিয়নটি নদী বেষ্টিত এলাকা হওয়ার ফলে প্রতিবছর বাড়ি ঘড় নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যায়।
মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জাহিদ ফারুক ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য
অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল আব্দুল হাফিজ মল্লিক সহ রাজনৈতিক এমপি মন্ত্রীদের প্রচেষ্টায় অসহায় মানুষের বাড়ি ঘড় রক্ষায় এই প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদন হয়।
বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে কনফিডেন্স নামক একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়, কিন্তু কনফিডেন্স প্রতিষ্ঠান তাদের কাজ বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে হাতবদল করে মাসুদ নামে এক ব্যক্তির মাধ্যমে জিও ব্যাগে বালু ফালায়, সেই ব্যক্তির ছত্র ছায়ায় কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশে এই নিন্মমানের বালু দিয়ে কাজ শুরু করে। স্থানীয় লোকজন চেয়ারম্যান হানিফ তালুকদার কে এ ঘটনা জানালে তিনি ঘটনা স্থলে চলে যান। এ বিষয়ে হানিফ তালুকদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান,এলাকাবাসী আমাকে কাজের অনিয়মের কথা জানালে আমি স্থানীয় মেম্বর ও অত্র ইউনিয়নের চৌকিদার সহ অর্ধশতাধিক গন্যমান্য লোকজন নিয়ে ঘটনা স্থলে যাই এবং সেখানে গিয়ে আমি এই কাজের অনিয়ম দেখতে পাই।স্থানীয়দের সাথে কথা বললে তারা জানান, এই তেতুলিয়া নদী থেকে প্রায় ৮ দিন যাবত কাঁদা মাটি উত্তলন করে জিও ব্যাগের মাধ্যমে ভরা হয়, যা নিয়মের পরিপন্থী। দূ্র্গাপশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বলেন এ বিষয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ৩টি নিন্মমানের বালু ভর্তি জাহাজ চৌকিদারের মাধ্যমে থামিয়ে রাখা হয়েছে বলে জানান।
এমন অনিয়ম দূর্নীতির বিরুদ্ধে আমি সহ আমার এলাকার সাধারণ জনগণ প্রতিবাদ করায়
রাজনৈতিক ভাবে কিছু অসৎ স্বার্থলোভী লোকদের সহায়তায় আমার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী মো: রেজাউল করিমের মাধ্যমে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি জিডি করানো হয়। এমন মিথ্যা নাটক মনগড়া কথাবার্তা দিয়ে থানায় জিডি করার ব্যাপারে স্থানীয় লোকজন ও সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ তীব্র নিন্দা জানায়।