বাকেরগঞ্জে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ঔষধ মিশিয়ে স্বর্ণালংকার লুট

বাকেরগঞ্জে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ঔষধ মিশিয়ে স্বর্ণালংকার লুট

রানা সেরনিয়াবাত বরিশাল।
বরিশালের বাকেরগঞ্জে একটি হিন্দু বাড়িতে খাবারের সাথে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে বাড়িতে থাকা নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে প্রতিবেশিরা অচেতন অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় বাকেরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে।

রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের নন্দপাড়া স্বপন ঘোষের বাড়িতে ঘটনাটি ঘটেছে।

চেনতানাশক ঔষধ খেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় স্বপন ঘোষ লাইফ সাপোর্টে ও তার স্ত্রী গীতা রানী ঘোষ আইসিইউতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সর্বস্ব হারিয়ে এখন আর্তনাদ করছে ঘোষ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা।

ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, রবিবার সন্ধ্যার কোন এক সময় কে বা কারা চন্দন দাসের বাড়িতে প্রবেশ করে কৌশলে রান্না ঘরে রাখা খাবারের সঙ্গে চেতনা নাশক ঔষধ মিশিয়ে দেয়। রাতে তারা দুই স্বামী-স্ত্রী ওই খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। ওই সুযোগে দুবৃর্ত্তরা বাড়িতে থাকা নগদ ১ লক্ষ টাকা, ১০ ভরি স্বর্ণালংকারসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়।

রঙ্গশ্রী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ বশির উদ্দিন সিকদার বলেন, ‘অজ্ঞান করা ঔষধ দিয়ে পরিবারটির সর্বনাশ করা হয়েছে। এটা চুরি নয় ডাকাতি মত বলে মনে হচ্ছে।’

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি এস এম মাকসুদুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে। কোন একটি চক্র হয়তো ফাঁদ পেতে এ অপকর্ম করেছে। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের বিট অফিসারকে পাঠিয়ে ঘটনাটি তদন্ত করা হবে বলে জানান তিনি।