ভান্ডারিয়ায় দুই সহোদর কে পিটিয়ে-কুপিয়ে জখমের অভিযোগ

ভান্ডারিয়ায় দুই সহোদর কে পিটিয়ে-কুপিয়ে জখমের অভিযোগ

রানা সেরনিয়াবাত বরিশাল।
পিরোজপুর জেলার ভান্ডারীয়া উপজেলার রাজ পাশা গ্রামে জোরপূর্বক গাছ কাটা কে কেন্দ্র করে দুই সহোদর কে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে নগদ অর্থ ও দুইটি বিদেশি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। গত (১৩ জানুয়ারি)শুক্রবার দুপুর সাড়ে ৩টায় রাজপাশা গ্রামের মৃধা বাড়িতে এ হামলার ঘচটনা ঘটে। আহতরা হলেন, ওই গ্রামের বাসিন্দা মৃত:আব্দুল হালিম মৃধার ছেলে রাজু মৃধা ও রিমন মৃধা। বর্তমানে তারা শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহত রাজুর শশুর হিরু মৃধা জানান, ঘটনার দিন দুপুরে তার নিজ বসত বাড়ির জমিতে তার লাগানো কয়েকটি চাম্পল গাছ জোরপূর্বক কেটে নেয় একই গ্রামের ভূমি দস্যু ও সন্ত্রাসী শাহিন মৃধা তার স্ত্রী আয়েশা বেগম ভাই সাব্বির মৃধা তার স্ত্রী সাথী বেগম ও মা সাফিয়া বেগম সহ কয়েকজন সন্ত্রাসী।এ সময় হিরু বাধা প্রদান করে।একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা হিরু কে বেধড়ক মারধর করে।তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়দের সাথে তার জামাতা রাজু তার ছোট ভাই রিমন ঘটনা স্থলে তাকে উদ্ধার করতে গেলে শাহিন মৃধা সহ অন‍্যন‍্য ভূমি দস্যু ও সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিত ভাবে তাদেরকে হত‍্যার উদ্দেশ‍্যে রাম দা এবং চাপাতি সহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় নগদ অর্থ সহ তার স্ত্রী মমতাজ বেগমও মেয়ে মেরিনা আক্তারের গলায় থাকা দুইটি বিদেশি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয় তারা বলে অভিযোগ রয়েছে।পরে স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদের অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। আহতদের অবস্থা আশংকা জনক।তাদেরকে যে কোনো সময় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান,ওই ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে আহতের স্বজনরা জানান।