ঝালকাঠিতে লবণ কারখানা বন্ধ করেছে শ্রমিক সভাপতি

14

মানবতার কন্ঠ ডেস্কঃ- রমজানের প্রথম দিনেই ঝালকাঠিতে একটি লবন কারখানার উৎপাদন ও কাচামাল ওঠানামার কাজ লবণ শ্রমিকদের সংগঠন হ্যান্ডেলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর হুমায়ুন কবীর খান বন্ধ করে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে । সোমবার সকালে সেভাপতি ও কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের নির্দেশে তাঁর লোকজন গিয়ে শহরের পশ্চিম ঝালকাঠি এলাকার শরীফ সল্ট কারখানায় কাচামাল ওঠানামা বন্ধ করে দেয়। এতে দুর্ভোগে পড়েন কারখানার মালিক ও শ্রমিকরা। সকাল থেকে লবণের এ কারখানাটিতে উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। এতে রমজানে লবণের মূল্য আরো বাড়তে পারে আশঙ্কা করেছেন লবণ ব্যবসায়ী ও ভোক্তারা।
কারখানার মালিক ও শ্রমিকরা অভিযোগ করেন, ঝালকাঠির ‘শরীফ সল্ট’ দক্ষিণাঞ্চলের বিখ্যাত লবণ। দীর্ঘদিন ধরে ইঞ্জিন চালিত বড় বড় ট্রলারে কক্সবাজার থেকে কাচামাল এনে কারাখনাটিতে উৎপাদন করা হয় বিশুদ্ধ লবণ। কারখানাটি শহরের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে হওয়ায় স্থানীয় কাউন্সিলর ও ঝালকাঠি হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হুমায়ুন কবির খান’র সাথে স্থানীয় রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব কারখানার মালিক যুবলীগ নেতা কামাল শরীফের সাথে। একারণে সোমবার সকালে কাউন্সিলর ও শ্রমিক নেতা হুমায়ুন কবিরের নির্দেশে তাঁর ভাই সবুজ খান লোকজন নিয়ে কারখানায় কাচামাল উঠানামা বন্ধ করে দেয়। এতে বন্ধ হয়ে যায় লবন কারখানাটির উৎপাদন কাজ। কারখানায় কাজ না করায় রমজানের প্রথম দিনেই বেকার হয়ে পড়েছেন শ্রমিকরা। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন শরীফ সল্টের মালিক কামাল শরীফ। হ্যান্ডেলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর হুমায়ুন কবীর খান, শরীফ সল্ট কারখানায় শ্রমিক-মালিকদের দ্বন্দ্বে শ্রমিকরা কাজ করছে না। শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করছে মালিক। এ কারণে শ্রমিকরা মিলে কাজে না গিয়ে আমার কাছে আসছে প্রতিকারের জন্য। তাঁদেরকে অন্য কারখানায় ঢুকিয়ে দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। সামাজিকভাবে হেয় করতে তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here