রাজাপুরে অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তার রহস্যজনক নিখোঁজ

3

মানবতার কন্ঠ ডেস্কঃ রাজাপুর উপজেলা সদর নিবাসী অবসরপ্রাপ্ত কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াদুদ মৃধা ঝালকাঠির বাসা থেকে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ রয়েছে। ওয়াদুদ মৃধা উপজেলার রাজাপুর সদরের মৃত লতিফ মৃধার ছেলে। ওয়াদুদের বড় বোন জাহানারা বেগম জানান, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এর ঝালকাঠি সদর শাখায় থাকা অবস্থায় ২০০৯ সালে বিবাহিত মোসাঃ জেসমিনের সাথে সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং এক সাথে বসবাস করতে শুরু করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে ওয়াদুদ মৃধার কাছে তার বোনরা জানতে চাইলে তিনি জানায় জেসমিনকে তিনি বিয়ে করেছে। তাদের একমাত্র ভাই হওয়ায় তারা ভাইয়ের অন্যায় দাবী মেনে নেয়। তবে ওয়াদুদ মৃধার সাথে জেসমিনের বিবাহের কোন প্রমাণপত্র নেই বলে তারা জানায়। পরে ঐ জেসমিন সহ তার আগের স্বামীর এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে রাজাপুর উপজেলা সদরের বাসায় উঠে এবং বসবাস করতে থাকে। কিছুদিন পরে জেসমিনের পূর্বের স্বামী রাজা মিয়াও রাজাপুরে এসে তাদের সাথে একই সঙ্গে বসবাস করতে থাকে। অসামাজিক ভাবে বসবাস এলাকার লোকজনের নজরে আসলে পরিবারের কাউকে কিছু না বলে ওয়াদুদ আবার জেসমিনকে নিয়ে ঝালকাঠির পালবাড়ি এলাকায় চলে যায়। এক পর্যায় ওয়াদুদের বাড়ির লোকজনের সাথে সম্পর্কের দুরত্ব সৃষ্টি হয়। তারা দুর থেকে তার ভাইয়ের খোঁজখবর রাখতেন। জেসমিন ও তার পূর্বের স্বামীর ছেলে-মেয়েরা ওয়াদুদ মৃধাকে প্রায় নির্যাতন করতো। গত ৫মে হঠাৎ জেসমিন তার ছেলে-মেয়েসহ অপরিচিত লোকজন নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে তাদের (জাহানারার) বাড়িতে আসে এবং জানায় তার ভাই ওয়াদুদ মৃধাকে পাওয়া যাচ্ছে না। জাহানারা বেগম সহ তার অন্য বোনরা তাদের আত্মীয়-স্বজনদের বাড়ি খোঁজ খবর নিলেও কোথাও তার সন্ধান মেলেনি। কিন্তু তার পর থেকে এখন পর্যন্ত জেসমিন ওয়াদুদ মৃধার কোন খোঁজ দেয়নি বা তাকে পাওয়া গেছে কিনা জানতেও চায়নি। তিনি আরো জানান, প্রায় ১ মাস আগে তার ভাইয়ের কথিত স্ত্রী জেসমিন সহ তার পূর্বে স্বামীর ছেলে-মেয়েরা চাপ প্রয়োগ করে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ঝালকাঠি সদর শাখা থেকে ২০ লাখ টাকা উত্তোলন ও রাজাপুর সদর থেকে ওয়াদুদের পৈত্রিক সম্পত্তি ১০লাখ টাকা বিক্রয় করিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়। এই ৩০ লাখ টাকাই ওয়াদুদ মৃধার কাল হয়েছে বলে তারা দাবী করেন। জাহানারা বেগম আরো জানায়, তার ভাইয়ের টাকা আত্মসাত করার উদ্দেশ্যে তার ভাই কে হত্যা বা গুম করা হয়েছে বলে তারা দাবী করেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় মোসাঃ জাহানারা বেগম রাজাপুর প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এসব তুলে ধরেন। জাহানার বেগম উপজেলার মৃত সাইদুর রহমানের স্ত্রী ও ওয়াদুদ মৃধার বড় বোন। এ সময় ওয়াদুদ মৃধার অন্য স্বজনদের মধ্যে মেজ বোন মোসাঃ চামেলি বেগম, ভাগিনা মোঃ শহিদুল খান ও বোন জামাই আব্দুল হক উপস্থিত ছিলেন। ওয়াদুদ মৃধার নিখোঁজের জট খুলতে তারা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here